খেলা

ব্যাকফুটে আফগান।। লাঞ্চেই শতরান শিখর ধাওয়ানের

ক্রীড়া রিপোর্ট: আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ঐতিহাসিক টেস্ট ম্যাচে ‘ফায়ার অ্যান্ড আইস’ শুরু টিম ইন্ডিয়ার৷ দুই ভারতীয় ওপেনার শিখর ধাওয়ান ও মুরলি বিজয়ের জমাট জুটি ভারতকে প্রথম দিনের প্রথম সেশনেই শক্ত ভিতে বসিয়ে দেয়৷

শুরু থেকেই আগ্রাসী শিখর ধাওয়ান লাঞ্চের আগেই ব্যক্তিগত শতরান পূর্ণ করেন৷ সতর্ক ব্যাটিংয়ে হাফসেঞ্চুরি দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে বিজয়৷ প্রথম দিনের মধ্যাহ্ন ভোজের বিরতিতে ভারত বিনা উইকেটে ১৫৮ রান তুলেছে৷ লাঞ্চের আগেই নিজের সেরা পাঁচ বোলারকে ব্যবহার করেন স্তানিকজাই৷ তবে কোনও কিছুই প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে পারেনি ধাওয়ানের আগুনে ব্যাটিংয়ে৷ অন্যদিকে বরফ শীতল মানসিকতায় আফগান আক্রমণ প্রতিহত করে যান বিজয়৷ দুই ঘরানার ক্রিকেটে ধাওয়ান-বিজয় ভারতীয় ক্রিকেটের নির্ভীক মনোভাবের উৎকৃষ্ট উদাহরণ রাখেন চিন্নাস্বামীতে৷

ভারত ৫০ রান পূর্ণ করে ১০.৪ ওভারে৷ তাতে বিজয়ের অবদান ছিল ১২, ধাওয়ানের ৩১৷ ধাওয়ান ব্যক্তিগত অর্ধশতরান পূর্ণ করেন ৪৭ বলে ১০টি চার ও একটি ছক্কার সাহায্যে৷ ভারতের একশো রানে বিজয়ের যোগদান ছিল ২১৷ ধাওয়ানের অবদান ৭১৷

ইতিমধ্যে ৮৭ বলে ১৮টি চার ও ৩টি ছক্কার সাহায্যে ব্যক্তিগত শতরান পূর্ণ করে ইতিহাসে জায়গা করে নেন গব্বর৷ তিনিই প্রথম ভারতীয় ব্যাটসম্যান, যিনি প্রথম দিনে লাঞ্চের আগেই তিন অঙ্কের রানে পৌঁছে যান৷ টেস্টে ধাওয়ানের এটি যুগ্ম দ্বিতীয় দ্রুততম সেঞ্চুরি৷ দিনের প্রথম সেশনে একশোর বেশি রান করা ক্রিকেটারের সংখ্যা নেহাৎ কম নেই৷ তবে প্রথম দিনের প্রথম সেশনে শতরান করা ষষ্ঠ ক্রিকেটার হলেন ধাওয়ান৷ তিনি বসে পড়লেন ট্রাম্পার, ম্যাকার্টনি, ব্র্যাডম্যান, মজিদ খান ও ডেভিড ওয়ার্নারের সঙ্গে একাসনে৷

পরের দিকে মুরলি বিজয় তুলনায় আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করেন৷ ভারতের ১৫০ রানে বিজয় যোগদান রাখেন ৪০ রানের৷ ধাওয়ান তখন সবে মাত্র সেঞ্চুরিতে পৌঁছেছেন৷ লাঞ্চের সময় ধাওয়ান ৯১ বলে ১০৪ রানে ব্যাট করছেন৷ তিনি মেরেছেন ১৯টি চার ও ৩টি ছক্কা৷ বিজয় অপরাজিত রয়েছেন ৭২ বলে ৪১ রানে৷ তাঁর ব্যাট থেকে এসেছে ৬টি চার ও ১টি ছক্কা৷

আফগানিস্তানের দুই সেরা স্পিনার রশিদ খান ও মুজিব উর রহমান দিনের প্রথম সেশনে যথেচ্ছ রান বিলিয়েছেন৷ রশিদ টেস্ট কেরিয়ারের প্রথম ওভারেই ১৩ রান খরচ করেন৷ আফগান বোলাররা সাকুল্যে ২৭ ওভারে ২৫টি চার ও ৪টি ছক্কা হজম করেছে ৷ বরেন্দ্র বার্তা/এই

Close