তানোরশিরোনাম

একের পর এক ধর্ষণ, তবু শেষ রক্ষা হলো না ধর্ষক হাসানের

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীর তানোরে নড়িয়াল গ্রামের সিরিয়িাল ধর্ষক হাসান আলীকে (২৮) আটক করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারের পর দুপুরেই হাসান আলীকে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, প্রায় ৮মাস আগে একই গ্রামের জৈনক এক ব্যাক্তির স্ত্রীকে একা পেয়ে ধর্ষণ করার সময় এই ধর্ষকের গোপনাঙ্গে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করেছিলেন ওই গৃহবধূ। কিন্তু তারপরেও সেই ধর্ষক বেঁচে যায়। সেই ধর্ষকের কারণে এই গ্রামের আরো ২জন গৃহবধু তাদের স্বামীর সংসার করা হয়নি।
সেই সিরিয়াল ধর্ষক এবার আরেক গৃহবধূকে ধর্ষণ করেছে। তবে এবার আর রক্ষা হয়নি। পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হতে হয়েছে তাকে।
এনিয়ে ভিক্টিম ওই গৃহবধু আজ বুধবার বাদী হয়ে হাসানকে আসামী করে তানোর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেছেন। অপর দিকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য (ভিক্টিম) ওই গৃহবধুকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।
জানা গেছে, গত ২ মাস থেকে ওই গৃহবধুর স্বামী সিরাজগঞ্জ এলাকার একটি ইট ভাটায় কর্মরত রয়েছেন। এ সুযোগে তানোর উপজেলার নড়িয়াল গ্রামের নুরনবীর পুত্র হাসান আলী (২৮) একই এলাকার জৈনক ব্যাক্তি’র স্ত্রী (২০) এক সন্তানের জননীকে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো। মঙ্গলবার বিকালে প্রচন্ড ঝড় ও বৃষ্টির সময় বাড়িতে ঢুকে একা পেয়ে ওই গৃহবধুর জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এসময় ওই গৃহবধুর চিৎকার দিলেও ঝড় ও বৃষ্টির কারণে কেউ শুনতে পাইনি বা এগিয়ে আসেনি। পরে ধর্ষক পালিয়ে যায়। ঝড় ও বৃষ্টি শেষে ওই গৃহবধু বিষয়টি গ্রামবাসীকে জানায়।
পরে গ্রামবাসী ৯৯৯ ফোন করলে মুন্ডুমালা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর সাইফুল ইসলাম সংগীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে গিয়ে হাসান আলীকে আটক করেন।
গ্রামবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করে আরো বলেন, অভিযুক্ত হাসান এর আগে একই গ্রামের আরো ৪ গৃহবধুকে ধর্ষণ করেছে। থানায় মামলা না নেয়ায় গ্রামেই সেগুলো ধামা চাপা পড়েছে। অভিযুক্ত হাসানের কারনে এই গ্রামের আরো ২জন গৃহবধুর সংসার ভেঙ্গেছে।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ইন্সপেক্টর সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনার পর পালিয়ে লুকিয়ে থাকা বাড়িটি গ্রামবাসী ঘিরে রেখেছিলেন।
এব্যাপারে তানোর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাকিবুল হাসান বলেন, এঘটনায় থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দারে করা হয়েছে, অভিযুক্তকে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে জেল হাজতে এবং ভিক্টিম ওই গৃহবধুকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close