গোদাগাড়িশিরোনাম-২

কাঁকনহাট পৌর মেয়ৃরের চাল,সবজি ও প্যাকেট দুধ বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনা ভাইরাস থেকে জনগণকে রক্ষা করতে দেশের প্রতিটি জেলাকে লকডাউন ঘোষনা করেছেন সরকার। ফলে বন্ধ রয়েছে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দোকান ছাড়া অন্যান্য ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, সকল প্রকার যানবাহন ও উন্নয়নমূলক কাজ। এরফলে খেটে খাওয়া মানুষগুলো হয়েছে কর্মহীন। এছাড়াও বর্তমান প্রেক্ষাপটে মধ্যবিত্তদের অবস্থা আরো শোচনীয়। তারা কারো নিকট লজ্জায় চাইতে পারছেনা। এমনকি চুপ করে লাইনে দাঁড়িয়ে ত্রাণ নেবে সেটাও পারছেনা।
শুধু তাই নয় ঘরে খাবার এবং নগদ অর্থ না থাকায় জনগণ সবজী এমন কি শিশুদের দুধ পর্যন্ত ক্রয় করতে পারছেনা। এই সকল জনগণের কথা বিবেচনা করে আজ শনিবার বেলা ১১টা কাঁকনহাট পৌর মেয়র আলহাজ্ব আব্দুল মজিদ ১০ কেজি করে চাল, সবজি ( আলু, পুঁইশাক ও লাউ) ৩০০ পরিবারের এবং ২২ পরিবারের মধ্যে প্যাকেট দুধ বিতরণ করেন। এসময়ে পৌরসভার সকল কাউন্সিলর ও ট্যাগ অফিসার আব্দুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।
মেয়র বলেন, করোনা ভাইরাস বিশ্বব্যাপি মহামারি আকার ধারণ করেছে। বাংলাদেশেও প্রতিদিন সংক্রমনের সংখ্যা বাড়ছে। যত পরীক্ষা বেশী হবে, দেশবাসী এই করোনা ভাইরাস থেকে দ্রুত মুক্তি পাবে। কারণ পরীক্ষা না হলে কার শরীরে এই ভাইরাস লুকিয়ে আছে কেউ জানবেনা বলে জানান তিনি। তিনি আরো বলেন, দেশের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এই সমস্যা উত্তোরনেরজন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। কোন মানুষ না খেয়ে যেন না থাকে তার জন্য সকল প্রকার ব্যবস্থা ও প্রস্তুতি গ্রহন করেছেন। জনগণকে সহযোগিতা করার জন্য শত শত কোটি টাকা সরকারের পক্ষ থেকে বরাদ্দ দিয়েছেন তিনি। সেজন্য সরকার প্রধানকে তিনি ধন্যবাদ জানান।
এই ভাইরাস থেকে মুক্ত থাকতে সরকারী নির্দেশনা মেনে চলার জন্য পৌরবাসীসহ দেশের সকল মানুষকে আহবান জানান । সেইসাথে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখা এবং বার বার সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার পরামর্শ দেন মেয়র আব্দুল মজিদ। বরেন্দ্র বার্তা/ফকবা/অপস

Close