জাতীয়মহানগরশিরোনাম

আজ ঈদ-উল-ফিতর

ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত ।

ডেস্ক রিপোর্ট: দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধনা শেষে আজ সারাদেশে পালিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল ফিতর। দেশের সকল শ্রেনীর মানুষের মিলনের দিন আজ,উচ্চ-নিম্ন কোন ভেদাভেদ ছাড়াই আজ সবাই এক কাতারে দাড়িয়ে একসাথে পবিত্র ঈদের নামায আদায় করেছেন। নামায শেষে পারস্পারিক কুশল বিনিময়,ঈদের শুভেচ্ছা ও কোলাকুলি করে ঈদ উদযাপন করেছেন।

বরেন্দ্র বার্তা পরিবারের পক্ষ থেকে সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা,ঈদ মোবারক।

অন্যদিকে ঘরে ঘরে চলছে ফিরনি-পায়েসের আয়োজন। নতুন নতুন জামা-জুতো-টুপি পরে সদলে ছুটছে সবাই। মেহেদিতে হাত রাঙিয়েছে কিশোরী-তরুণীরা। ঈদে উপলক্ষে সারাদেশব্যাপী কঠোর নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হয়েছে।
এবারও কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায় দেশের সর্ববৃহৎ ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। ইতিমধ্যে সেখানে ঈদ জামাতের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।
দেশের প্রধান ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে। সকাল সাড়ে ৮ টায় জামাত শুরু হয় । রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ এখানে ঈদের নামাজ আদায় করেছেন। রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সুপ্রীম কোর্টের প্রধান বিচারপতি, মন্ত্রী পরিষদের সদস্যবৃন্দসহ সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেন। জাতীয় মসজিদেও ঈদের পাঁচটি জামাত হবে। সকাল ৭টা, ৮টা, ৯টা, ১০টা এবং ১১টায় ঈদের পাঁচটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। প্রধান ঈদের জামাতে মাতৃভূমির ও মুসলিম বিশ্বের শান্তি , সমৃদ্ধি ,কামনা করা হয়।
ঈদ উপলক্ষে দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা ও সড়কে আলোকসজ্জা, জাতীয় পতাকার সঙ্গে ঈদ মোবারক ও লা ইলাহা ইল্লাহু মুহাম্মাদুর (রা.) খচিত পতাকা দিয়ে সড়ক দ্বীপগুলোর শোভাবর্ধন করা হয়েছে।
পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে পৃথক বাণীতে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ। বাণীতে তারা শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি দেশবাসীর মঙ্গল কামনা করেছেন।
ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দৈনিক পত্রিকাগুলো বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ করেছে। সরকারি-বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে চ্যানেলে প্রচারিত হচ্ছে ঈদের বিশেষ অনুষ্ঠানমালা।হাসপাতাল, কারাগার, এতিমখানা, বৃদ্ধাশ্রম, শিশুসদনে উন্নতমানের খাবার পরিবেশনের ব্যবস্থা রয়েছে।
এবার রাজশাহী মহানগরী ও জেলার শতাধিক ঈদ মাঠে শান্তিপূর্নভাবে ঈদুল ফিতরের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শান্তিপূর্নভাবেই অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রাজশাহী মহানগরীতে প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয় হযরত শাহ মখদুম (রা:) ঐতিহাসিক কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে । রাজশাহী শাহ্ মখদুম (র.) কেন্দ্রীয় ঈদগাহে প্রায় প্রায় অর্ধ লক্ষ মুসল্লি ঈদ-উল-ফিতরের দুই রাকাত ওয়াজিব নামাজ আদায় করে। এই ঈদ জামাতে ইমামতি করেন, মহানগরের ঐতিহ্যবাহী জামিয়া ইসলামীয়া শাহ্ মখদুম (রহ.) মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মুফতি মোহাম্মদ শাহাদাত আলী। সহকারী ইমাম ছিলেন হেতমখাঁ বড় মসজিদের ইমাম মুফতি মালানা ইয়াকুব আলী। বয়ান করেন জামিয়া ইসলামীয়া মাদ্রাসার শিক্ষক মাওলানা নাজমুল হক। তাকে সহায়তা করেন মুফতি কারী রেজাউল করিম।
সকাল আটটায় এখানে নামাজ আদায় করেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাবেক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, ওয়ার্কাস পাটির সাধারণ সম্পাদক সাংসদ ফজলে হোসেন বাদশা, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু, নগর বিএনপি সভাপতি ও সিটি মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, বিভাগীয় কমিশনার নুর উর রহমান, জেলা প্রশাসক এসএম আব্দুল কাদের, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার।নামাজ শেষে মাদক ও জঙ্গিবাদ প্রতিহত করে দেশের শান্তি ও উন্নয়ন বজায় রাখার জন্য বিশেষ মোনাজাত করা হয়
এছাড়া একই সময় ঈদের দ্বিতীয় প্রধান ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় মহানগর ঈদগাহ (টিকাপাড়া) ময়দানে। তৃতীয় জামাতও অনুষ্ঠিত হয় সকাল ৮টায় মহানগরের সাহেব বাজার বড় রাস্তায়।  বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close