মহানগরশিরোনাম-২

মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় রাসিকের উদ্যোগে সভা অনুষ্ঠিত

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি: রাজশাহী মহানগরীতে মেডিকেল বর্জ্য নিরাপদ সংগ্রহ, পরিবহন এবং চুড়ান্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালনার জন্য সরকারি হাসপাতাল, সেবা কেন্দ্র ও বেসরকারি হাসপাতালসমূহের প্রতিনিধিবৃন্দের সমন্বয়ে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার দুপুরে নগরভবনের সরিৎ দত্ত গুপ্ত কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।
এ সময় মেয়র বলেন, পরিচ্ছন্নতায় দেশের মধ্যে অনন্য মহানগরী রাজশাহী। যার প্রশংসা সর্বত্র। বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় এ নগরীর প্রশংসা সর্বত্র হলেও মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় আরও কাজ করতে হবে। সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল ও ক্লিনিকের বর্জ্য আউট হাউজ ব্যবস্থাপনায় প্লান্ট স্থাপন কাজ সম্পন্ন হয়েছে। রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন এবং প্রিজম বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের মধ্যে মেডিকেল বর্জ্য আউট হাউজ ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। করোনা পরিস্থিতিতে পরিচ্ছন্ন কার্যক্রম জোরদারকরণে আমাদের সকলকে আরও দায়িত্বশীল হতে হবে। এ নগরীর মেডিকেল বর্জ্য আউট হাউজ ব্যবস্থাপনার উন্নয়নে সকল প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতা কামনা করেন মেয়র।
সভায় সভাপতিত্ব করেন রাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. এবিএম শরীফ উদ্দিন। সভায় রাসিকের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা স্থায়ী কমিটির সভাপতি প্যানেল মেয়র-১ ও ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু, ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কামরুজ্জামান, রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়েরর প্রধান চিকিৎসক ডা. মোঃ তবিবুর রহমান শেখ, পরিবেশ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মনির হোসেন, বক্ষব্যাধি হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. সুলতানা আকতার, সিএমএইচ রাজশাহীর মেজর ইফতেখার, ডা. শারমিন সেলিনা সুলতানা, ডা. রেহনুমা শিরিন, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ডা. মিজানুল হক সৌরভ, খ্রীস্টিয়ান মিশন হাসপাতালের মেডিকেল পরিচালক ডা. ডেভিড খান, রাজশাহীর মেডিকেল অফিসার ডাঃ সুব্রত রঞ্জন সরকার, সিআইডি কেমিক্যাল ল্যাব রাজশাহীর প্রযুক্তি সহকারী মুরাদ আলী খন্দকার, ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল হামিদ, রাজশাহী ডায়াবেটিক এসোসিয়েশনের একাউন্টস অফিসার এম. মামুনুর রশীদ খান, রাসিকের প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ মোঃ মামুন ও প্রিজম বাংলাদেশ রাজশাহীর ড্রিস্টিক কো-অর্ডিনেটর ফারুক জাহাঙ্গীর মিঠুসহ বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close