চাঁপাই নবাবগঞ্জজয়পুরহাটনওগাঁনাটোরপাবনাবগুড়ামহানগরশিরোনামসিরাজগঞ্জ

রাজশাহী বিভাগে আরও ২১৩ জনের নমুনায় করোনা

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী বিভাগের আট জেলার মধ্যে পাঁচ জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ২১৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। নাটোর, পাবনা ও জয়পুরহাটে এ দিন কোন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়নি। এদিন নওগাঁয় ১ জন ও বগুড়ায় ২ জন করোনা আক্রান্ত রোগি মারা গেছেন। একই সময় সুস্থ্য হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন ১১৮ জন।

মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত রাজশাহী বিভাগে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৮৩৬ জনে। এ বিভাগে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১১৭ জন এবং সুস্থ্য হয়েছেন ৩৫০৩ জন। দুপুরে এক প্রতিবেদনে রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য দপ্তারের পরিচালক ডা. গোপেন্দ্র নাথ আচার্য্য এ তথ্য জানিয়েছেন।

ডা. গোপেন্দ্র নাথ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্তের মধ্যে রাজশাহীর ১০৬ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ২৬ জন, নওগাঁয় ৩ জন, বগুড়ায় ৪৫ জন ও সিরাজগঞ্জে ৩৩ জন।

তিনি জানান, রাজশাহী বিভাগে আক্রান্তদের মধ্যে সর্বোচ্চ বগুড়ায় ৩৮০৮ জন। এছাড়াও রাজশাহী জেলায় ১৭৮৮ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ২২৫ জন, নওগাঁয় ৬৭৯ জন, নাটোরে ৩০৫ জন, জয়পুরহাটে ৫৫০ জন, সিরাজগঞ্জে ৮৮২ জন ও পাবনায় ৫৯৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

তিনি বলেন, সরকারি হিসেবে এ পর্যন্ত বিভাগের আট জেলার মধ্যে ছয় জেলায় মৃতের সংখ্যা ১১৭ জন। এর মধ্যে রাজশাহীতে ১৫ জন, নওগাঁয় ১১ জন, নাটোরে একজন, বগুড়ায় ৭২ জন, সিরাজগঞ্জে নয়জন ও পাবনায় নয়জনের মৃত্যু হয়েছে করোনাভাইরাসে। সরকারি হিসেবে এখনো জয়পুরহাট ও চাঁপাইনবাবগঞ্জে কোন করোনা আক্রান্ত রোগি মারা যায়নি।

গত ২৪ ঘন্টায় সুস্থ্য হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন আরও ১১৮ জন। এ নিয়ে বিভাগে সুস্থ্য হয়েছেন ৩৫০৩ জন করোনা আক্রান্ত রোগি। এর মধ্যে রাজশাহীর ৩৫৩, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৯৩ জন, নওগাঁয় ৫০৫ জন, নাটোরে ১০১ জন, জয়পুরহাট ১৮১ জন, বগুড়ায় ১৮৯৬ জন, সিরাজগঞ্জ ১৩৮ জন ও পাবনায় ২৩৬ জন।

ডা. গোপেন্দ্র নাথ বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে মানুষের সচেতনতার কোনো বিকল্প নেই। অতি জরুরী প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না। প্রয়োজনে বের হলে মাস্ক পরতে হবে। এছাড়াও সামাজিক দুরত্ব রাখাসহ মেনে চলতে হবে স্বাস্থ্যবিধি। তবেই করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব বলে মনে করেন এই স্বাস্থ্য কর্মকর্তা।

বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close