নওগাঁ

নিয়ামতপুরে ছাত্রলীগের উদ্যোগে ১০০০ বৃক্ষরোপণ

বিশেষ প্রতিনিধি: নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শনিবার বিকেলে ছাত্রলীগের উদ্যোগে ১০০০ টি বৃক্ষরোপণ করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. বেলাল হোসেন বিদ্যুৎ এর নেতৃত্বে এই কার্যক্রমটি সম্পন্ন হয়। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে সারাদেশে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচীর অংশ হিসেবে এর আয়োজন করে নওগাঁ জেলা ছাত্রলীগ।

উদ্বোধনের সময় উপস্থিত ছিলেন নিয়ামতপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান ফরিদ আহম্মেদ, সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক জাহিদ হাসান বিপ্লব এবং নিয়ামতপুর সরকারি কলেজের সম্মানিত সহকারী অধ্যক্ষ মোঃমমতাজ মন্ডল সভাপতিত্ব করেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো: সাব্বির রহমান রেজভী এবং কর্মসূচীটি পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মো: আমানুজ্জামান সিউল। আরও অংশগ্রহণ করেন জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি বিশাল মজুমদার, সহ-সভাপতি রায়হান কবির রাজু, সহ-সম্পাদক অজিত মুন্ডা, সদস্য মাহদী হাসান পায়েল এবং নিয়ামতপুরের ছাত্রলীগের বিভিন্ন স্তরের নেতা-কর্মীবৃন্দ।

উপজেলা জুড়ে প্রাথমিক বিদ্যালয়-উচ্চ বিদ্যালয়-কলেজ-মাদ্রা­সাসহ সর্বমোট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ২০৫ টি। ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড ভিত্তিক টিম করে প্রতিটি টিমের কাছে আগেই গাছ পৌঁছে দেয়া হয়। বিকেল চারটায় একযোগে রোপন শুরু হয় এবং সন্ধ্যা নাগাদ ১০০০ বৃক্ষ রোপণ সম্পন্ন হয়। গাছের তালিকায় ছিল জাম, কাঁঠাল, বাতাবী লেবু, পেয়ারা, তেঁতুল, আমলকী, বেল, জলপাই, ডালিম, কাঠবাদাম, বকুল, কৃষ্ণচূড়া, হরিতকী, বহেরা, আকাশমনি, মেহগনি ও কদম।
প্রতিটি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকেরা উপস্থিত থেকে সহযোগিতা করেন।

এমন মহৎ উদ্যোগের এত চমৎকার ও সুশৃঙ্খল বাস্তবায়ন ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। বিশেষ করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কেন্দ্রীক ছাত্রলীগের ভাবনাটি সবার মুখ মুখে প্রশংসিত হচ্ছে।

এ বিষয়ে খাদ্যমন্ত্রী ও স্থানীয় সাংসদ জনাব সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, মুজিববর্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ১কোটি বৃক্ষ রোপণের কর্মসূচী দিয়েছেন। ছাত্রলীগসহ আওয়ামী পরিবারের সকল সংগঠন এর বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। “আমি সব সময়ই ছাত্রলীগের ইতিবাচক কাজের সাথে একাত্ম। তারা লেখাপড়ার পাশাপাশি দেশ ও দশের জন্য বেশি বেশি কাজ করুক এটাই আমার প্রত্যাশা।”

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. বেলাল হোসেন বিদ্যুৎ এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “নতুন কোন বিষয় নয়। ছাত্রলীগ নিজ তাগিদে সবসময়ই ইতিবাচক কাজ করে আসছে। তবে সব কাজের প্রচার বা আলোচনা হয় না। সেটা অবশ্য অপরিহার্যও নয়। এবার বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা গাছ লাগানোর বিশেষ নির্দেশনা ও উৎসাহ দিয়েছেন। তাছাড়া তিনি বলেছেন এক ইঞ্চি জমিও যেন পড়ে না থাকে। যাইহোক, শুধু গাছ লাগানো পর্যন্তই নয়। গাছগুলো বড় করার বিষয়েও ছাত্রলীগসহ সবাই যত্নশীল হবে বলে আশা রাখি।”

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাব্বির রহমান রেজভী ও সাধারণ সম্পাদক আমানুজ্জামান সিউল বলেন, “এটা আমাদের নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নির্দেশ এবং কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নির্দেশ। ছাত্রলীগ সারা দেশে বৃক্ষরোপন কার্যক্রম পরিচালনা করছে। তারই অংশ হিসেবে আজ নিয়ামতপুর উপজেলার সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আমরা গাছ লাগাচ্ছি।”

খাদ্যমন্ত্রী প্রোগ্রাম চলাকালীন সময়ে ফোন করে সার্বিক খোজ খবর নেন এবং দিকনির্দেশনা দেন।

অনুষ্ঠানটি শেষ হয় বামইন স্কুল এন্ড কলেজে।
বরেন্দ্র বার্তা/ নাসি

Close