জাতীয়শিরোনাম

ভোট স্থগিতের দাবি জানালেও শেষ দেখবেন হাসান

ডেস্ক রিপোর্ট: গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ভোট স্থগিতের দাবি জানিয়েছেন বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার। তবে তিনি নির্বাচন বর্জন করবেন না, শেষ পর্যন্ত লড়ে যাবেন।

মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে গাজীপুর বিএনপির কার্যালয়ে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ দাবি জানান।

তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত শতাধিক ভোটকেন্দ্রে বিএনপির এজেন্টকে মারধার ও বের করে দেয়া হয়েছে। জাল ভোট দেয়া হয়েছে। এ অবস্থায় আমি নির্বাচন স্থগিতের দাবি জানাচ্ছি।

নির্বাচন স্থগিতের দাবি জানালেও নির্বাচন বর্জন করবেন না তিনি। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে হাসান উদ্দিন সরকার বলেন, আমি নির্বাচনের শেষ পর্যন্ত দেখতে চাই। সাধারণ মানুষ জানুক যে কী হচ্ছে। তবে স্থগিতের দাবি জানাচ্ছি।

এর আগে সকাল ৮টা ২৪ মিনিটে নিজ বাসভবন সংলগ্ন ৫৪ ওয়ার্ডের আউচপাড়ায় বশির উদ্দিন উদয়ন একাডেমি ভোটকেন্দ্রে ভোট দেন বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার।

এদিকে গাজীপুর সিটি নির্বাচন নিয়ে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকেও নানা অভিযোগ তোলা হয়েছে। দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এ সংবাদ সম্মেলনে দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব আ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেন, ‘নির্বাচন শুরুর পর থেকে শতাধিক ভোট কেন্দ্র থেকে বিএনপির এজেন্টদের বের করে দেয়া হয়েছে। জাল ভোট, মারধর ও ভোট জালিয়াতির মহোৎসব চলছে। নজিরবিহীনভাবে বিএনপি এজেন্টদের গ্রেফতার করা হয়েছে।’

তবে বিএনপির এসব অভিযোগকে ‘উদোর পিণ্ডি বুধোর ঘাড়ে’ বলে উল্লেখ করেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক। তিনি বলেন, ‘বিএনপি প্রার্থীর দুর্বলতায় এজেন্ট নিয়োগ দিতে পারেনি। নিজেদের দুর্বলতা ঢাকতে উদোর পিণ্ডি বুধোর ঘাড়ে চাপাচ্ছে বিএনপি।’ সূত্র : জাগো নিউজ । বরেন্দ্র বার্তা/এই

Close