বাগমারাশিরোনাম-২

বাগমারায় গৃহবধূ মুক্তির আত্মহত্যার ঘটনায় স্বামী ও শ্বাশুড়ি আটক

আব্দুল মতিন, বাগমারা : বাগমারার গোবিন্দপাড়া ইউনিয়নের দেওপাড়া গ্রামের গৃহবধূ মাধূরী আক্তার মুক্তির (১৬) আত্মহত্যার ঘটনায় স্বামী ও শ্বাশুড়িকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হলেন- মুক্তির স্বামী মোস্তফা কামাল জুয়েল (২২) ও শ্বাশুড়ি জুলেখা খানম (৫০)। গতকাল বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।
জানা যায়, নওগাঁর হাঁপানিয়া চকগৌরী এলাকার মকলামপুর গ্রামের বাবুল হোসেনের মেয়ে মাধূরী আক্তার মুক্তি। জন্মের ৫ বছর পর থেকেই সে বাগমারার বিলমালোলী গ্রামে নানার বাড়িতে থাকতো। তারা নানার নাম ফসির উদ্দিন। নানার আশ্রয়ে থাকা অবস্থায় প্রায় দুই বছর পূর্বে দেওপাড়া গ্রামের মফিজ উদ্দিনের ছেলে মোস্তফা কামাল জুয়েলের সঙ্গে বিয়ে হয় মুক্তির। তাদের সংসারে মোব্বাশিরা নামে দেড় বছর বয়সের একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে।
গত শুক্রবার সকাল থেকে এলাকায় মুশলধারে বৃষ্টি চলছিল। এ সময়ে বাড়িতে কেউ ছিল না। বৃষ্টির পর বাড়ির লোকজন এসে গৃহবধূ মুক্তির লাশ শিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে ঝুলতে দেখে চিৎকার দিতে থাকে। স্থানীয়রা ঝুলন্ত অবস্থায় ওই গৃহবধূর লাশ দেখে হাটগাঙ্গোপাড়া তদন্ত কেন্দ্রে খরর দেয়। পুলিশ এসে গৃহবধূ মুক্তির লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায় এবং ময়না তদন্ত সম্পন্ন হওয়ার পর পরে নানার পারিবারিক গোরস্থানে লাশ দাফন করা হয়। তবে তার আত্মহত্যা নিয়ে এলাকায় রহস্য সৃষ্টি হয়েছে। মুক্তি আত্মহত্যা না তাকে হত্যা করা হয়েছে এ নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে গুনঞ্জন চলছে।
এ ব্যাপারে হাটগাঙ্গোপাড়া তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম বলেন, গৃহবধূ মাধূরী আক্তার মুক্তির সন্দেহমূলক আত্মহত্যার ঘটনায় মামলা হওয়ার পর স্বামী ও শ্বাশুড়িকে আটক করা হয়েছে। গতকাল বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।
বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close