অর্থ ও বাণিজ্যমহানগরশিরোনাম

রাজশাহীতে আবারও বাড়ল পেঁয়াজের দাম

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীতে পেঁয়াজের দাম আবারও বৃদ্ধি পেয়েছে। একদিনের ব্যবধানে পাইকারি বাজারে ভারতীয় পেঁয়াজের দাম প্রতি কেজিতে ২৫ টাকা আর দেশি পেঁয়াজ কেজিতে ১০ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে। এভাবে দাম উঠানামায় ভোগান্তিতে পড়েছেন ক্রেতারা। দাম বাড়ার শঙ্কায় অনেককে দুই কেজির জায়গায় ৫ কেজি করে পেঁয়াজ কিনতে দেখা গেছে।

মঙ্গলবার সকালে সরেজমিনে মহানগরীর সাহেব বাজার, সাগরপাড়া, কোর্ট স্টেশন, নিউ মার্কেট, উপশহরের কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা গেছে, ভরতীয় পেঁয়াজ পাইকারি প্রতি কেজি ৭৩ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে। আর খুচরা বাজারে বিক্রি হয়েছে ৮০ টাকা কেজি। যেখানে আগের দিন সোমবার পাইকারী ৫২ টাকা দরে বিক্রি হয়। মঙ্গলবার দেশি পেঁয়াজ পাইকারি ৮০ টাকা ও খুচরা ৯০ টাকা দরে বিক্রি হয়। যেটিও আগের দিন পাইকারি ৭০টাকা এবং খুচরা ৮০টাকা কেজি বিক্রি হয়। ফলে ক্রেতারা প্রয়োজনের তুলনায় অতিরিক্ত পেঁয়াজ কিনেছেন।

ক্রেতাদের অভিযোগ, প্রশাসনের নজরদারী কয়েকদিন থাকলেও এখন অভিযান বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অতিরিক্ত দামে পেঁয়াজ কিনতে হচ্ছে। কালোবাজারির শঙ্কায় প্রয়োজনের তুলনায় বেশি পেঁয়াজ কিনছেন। তারা বলেন, টিসিবির গাড়িতে নায্যমূল্যে পেঁয়াজ দেয়ার কথা বলা হলেও সেখানে গিয়েও ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে।

তবে বিক্রেতারা পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির বিষয়ে বলেন, চালানে যেমন দাম ধরা হচ্ছে, সে অনুযায়ী লাভ করে তারা পেঁয়াজ বিক্রি করছেন। অতিরিক্ত দামের জন্য তারা দায়ী নন; বরং বড় আড়তদাররা দায়ী।

এদিকে পেঁয়াজের বাড়তি দাম ঠেকাতে গত ১৬ সেপ্টেম্বর জেলাজুড়ে মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালনা করে জেলা প্রশাসন। সেদিন বেশ কয়েকজন বিক্রেতাকে জরিমানাও করা হয়। সেসময় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবু আসলাম বলেন, দেশে পেঁয়াজের যথেষ্ট মজুদ রয়েছে। হঠাৎ পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি অনাকাঙ্খিত এবং অগ্রহণযোগ্য। জেলাজুড়ে মোবাইল কোর্ট টিম কাজ করছে। অশুভ পন্থা অবলম্বনকারী কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে রাখতে অভিযান চলবে।
বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close