মহানগরশিরোনাম

নগরীতে ছাত্রশিরিব সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকসহ আটক-৪

 

নিজস্ব প্রতিবেদক: শুক্রবার ( ২৬ সেপ্টেম্বর) রাত ৯টার দিকে মহানগরী শাহমখদুম কলেজের একটি কক্ষ থেকে ছাত্র শিবিরের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৪ জনকে আটক করেছে বোয়ালিয়া থানা পুলিশ।
বোয়ালিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নিবারন চন্দ্র বর্মন জানান, পদ্মা যুব সমাজের ব্যানারে মিটিং চলাকালীন সময় ১৮জনকে আটক করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে ১৪ জনের সংশ্লিষ্টটা না পাওয়ায় তাদের ছেড়ে দেয় হয়েছে।
তবে তাদের মধ্যে ২৩ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্র শিবিরের সভাপতি ও শেখেরচক এলাকার মৃত আব্দুল কালাম আজাদের ছেলে মেসবাউল মধু, একই ওয়ার্ডের ছাত্র শিবিরের সধারণ সম্পাদক ও মজিবুর রহমানের ছেলে রায়হান মজিদ, আমির আলীর ছেলে শিবির কর্মি শাহীন আলী ও রবিউল হকের ছেলে হোসেন আলী রাজু নামের চারজনকে আটক করা হয়েছে।
ওসি আরও বলেন, আটককৃতরা বোয়ালিয়া থানাধীন শেখেরচক এলাকার বাসিন্দা।
করোনা পরিস্থিতি কাজে লাগিয়ে দীর্ঘ ৭ মাস থেকে ত্রাণ বিতোরনের নামে শেখেরচক এলাকায় তাদের কার্যক্রম সংক্রীয়ভাবে চালিয়ে আসছিলো তারা।
এছাড়াও সংগঠন চাংগা রাখতে রুটিং মাফিক নগরীর বিভিন্ন স্থানে ঘরোয়া বৈঠকের মাধ্যমে যুবকদের দাওয়াতি কার্যক্রম পরিচালনা করছিলো তারা।
এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল শুক্রবার শাহমখদুম কলেজে’র একটি কক্ষে পদ্মা যুব সমাজের ব্যানারে তাদের নেতা কর্মীদের নিয়ে কৌশলে একটি মিটিং ও দাওয়াতি কার্যক্রম পরিচালনা করছিলো জামায়াতি ইসলাম ও ছাত্র শিবিরের নেতা-কর্মীরা। এমন তথ্যের ভিত্তিতে ওই কলেজে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়েছে। তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বেশ কয়েকজন জামায়াত সদস্য ও ছাত্রশিবির নেতা-কর্মীরা পলিয়ে গেছে।

আটককৃতদের পূর্বের মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আজ শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে বলেও জানান ওসি।

বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close