মোহনপুরশিরোনাম-২

মোহনপুরে জনতার হাতে ডাকাতচক্র গণধোলাই: পুলিশে সোপর্দ

সমিত রায়, মোহনপুর: রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার কেশরহাট বাজার সংলগ্ন এলাকায় একটি ডাকাত চক্রকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের হাতে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসি। ২৮ সেপ্টেম্বর সোমবার কেশরহাট পৌরসভা এলাকায় রাজশাহী-নওগাঁ মহাসড়কের ধারে বাকশৈলগ্রামস্থ সিটিসেল টাওয়ার হতে প্রায় ৫ লক্ষ টাকা মূল্যের যন্ত্রাংশ চুরিকরার সময় সকল ডাকাত সদস্য আটক হয়েছে বলে মোহনপুর থানা নিশ্চিত করেছে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার সকাল ১০ টার দিক হতে আনুমানিক বেলা ১ টা পর্যন্ত ৯/১০ জন লোক এসে সিটিসেল টাওয়ারের বিভিন্ন যন্ত্রাংশ খুলে সেগুলো পিকআপ ভ্যানে লোড করছিল। এমন খবরের ভিত্তিতে নৈশপ্রহরী বাকশৈল গ্রামের মৃত জমির উদ্দিনের ছেলে মোঃ নইমুদ্দিন (৬০) ঘটনাস্থলে এসে উক্ত ব্যক্তিদের জিজ্ঞেস করে যে, তারা কেন এই সিটিসেল টাওয়ারের যন্ত্রাংশ খুলছে। এমন প্রশ্নের উত্তরে আসামীগণ একেক সময় একেক ধরণের উত্তর দিচ্ছিল। তখন নইমুদ্দিনের সন্দেহ হলে সিটিসেল হেড অফিসে ফোন করলে তারা জানায়, তারা কাউকে যন্ত্রাংশ খোলার জন্য পাঠায়নি। এরপর নইমুদ্দিন এলাকার লোকজনদের ডাকে এবং তাদেরকে আটক করে গণধোলাই দেয়। এর মাঝেই তিন থেকে চারজন আসামী দ্রুত সেখান থেকে পালিয়ে যায় । বাকি আসামিদের কে নিকটবর্তী মোহনপুর খবর দেয়া হলে মোহনপুর থানা পুলিশ এবং রাজশাহী জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সুমন দেব দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় এবং আসামীদেরকে আটক করে মালামালসহ একটি পিকআপ (ছোট ট্রাক)থানায় নিয়ে যায়। যার রেজিষ্টেশন নং জয়পুরহাট ১১-০০০৭, ইঞ্জিন নং২৭৫১উ১০৫ঈডণঝ৫৫৪৮৯ চেসিস নং গঅঞ৪৪৫০৫১উতজ২২৫০৬। এবিষয়ে মোহনপুর থানায় খোঁজ খবর নিযে জানা যায়,আটককৃত আসামিরা হল: নাটোর নলডাঙ্গা থানার দিঘীরপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল হামিদের ছেলে বোরহানুজ্জামান (৩৩), বগুড়া জেলার কাহালু থানার কালাই মাঝপাড়া গ্রামের মৃত মমতাজুর রহমানের ছেলে রকি (২৭), আমিনুর রহমানের ছেলে তৌফিকুর রহমান (৩২), ঝন্টু চন্দ্র মালির ছেলে জনি চন্দ্র মালি(২৪), মুন্সিগঞ্জ জেলার লৌহজং থানার উত্তর জয়সিন্ধিয়া গ্রামের মৃত খবির হাওলাদারের ছেলে হারুন (২৭), নীলফামারী জেলার জলঢাকা থানার চিড়াভিজাগোলনা গ্রামের মৃত মোবারক হোসেনের ছেলে আসাদুল ইসলাম (৩৫)।
তবে এ বিষয়ে জানতে চাইলে রাজশাহী জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সুমন দেব বলেন, সিটিসেল টাওয়ারে ডাকাতির সময় মোট ৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আসামীদেরকে মঙ্গলবার বিজ্ঞআদালতে প্রেরণ করা হয়েছে এবং রিমান্ডের জন্য আবেদন করা হবে। আসামীদেরকে রিমান্ডে এনে এই ঘটনার সাথে আর কে বা কারা জড়িত তাদের খুঁজে বের করা হবে।
বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close