চারঘাটশিরোনাম-২

আন্তর্জাতিক গ্রামীণ নারী দিবস উপলক্ষে চারঘাটে গ্রামীণ মেলা ও আলোচনা সভা

 

মোঃ সজিব ইসলাম, চারঘাট (রাজশাহী) : ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামের উদ্যোগে ও মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের কারিগরী সহযোগিতায় রাজশাহীর চারঘাটে আন্তর্জাতিক গ্রামীণ নারী দিবস ২০২০ উপলক্ষে গ্রামীন হস্তশিল্প মেলা, পুরস্কার বিতরণী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সুইুডস সিডার আর্থিক সহযোহিতায় গতকাল বৃহস্পতিবার ‘‘খাদ্য সুরক্ষা ও দারিদ্রতা নির্মূলে আদিবাসী ও গ্রামীণ নারীর অবদানই মুখ্য- প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে উপজেলার শলুয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে গ্রামীণ হস্তশিল্প মেলা ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

সভায় উদ্বোধনী অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন জেন্ডার সহিংসতা প্রতিরোধ ও মোকাবেলা প্রকল্প- (সিজিবিভি রাজশাহী) এর সহকারী প্রকল্প সমন্বয়কারী খুরশীদা বাহার।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শলুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়্যারম্যান জিয়াউল হক মাসুম এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার জয়নাল আবেদীন।

এছাড়াও আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সোস্যাল সাপোর্ট কমিটির সভাপতি সাইফুল ইসলাম বাদশা, শলুয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ বাবুল ইসলাম, ইউনিয়ন সোস্যাল সাপোর্ট কমিটির সদস্যবৃন্দ ও এনডিপির সিজিবিভি প্রকল্পের একাউন্টস অফিসার ফরিদুল ইসলাম, প্রজেক্ট ফ্যাসিলিলেটর আবুল হান্নান, মৌসুমী খাতুন, তানজিলা আকতার এবং আবদুল্লাহ আল মুইজ।

স্বাগত বক্তব্যে জেন্ডার সহিংসতা প্রতিরোধ ও মোকাবেলা প্রকল্প- (সিজিবিভি রাজশাহী ) এর সহকারী প্রকল্প সমন্বয়কারী খুরশীদা বাহার বলেন, ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম (এনডিপি) চারঘাট উপজেলার শলুয়া ও ইফসুফপুর ইউনিয়নের ১৪ টি গ্রামে মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের কারিগরি সহায়তায় “জেন্ডার সহিংসতা প্রতিরোধ ও মোকাবেল প্রকল্প” এর কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে। নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধের অংশ হিসেবে ১৫ অক্টোবর ২০২০ “আন্তর্জাতিক গ্রামীণ নারী দিবস ২০২০” পালন করা হচ্ছে। এ বছরের প্রতিপাদ্য বিষয় হলো ‘‘খাদ্য সুরক্ষা ও দারিদ্রতা নির্মূলে আদিবাসী ও গ্রামীণ নারীর অবদানই মুখ্য অবদানের স্বীকৃতি ও অবদানের গুরুত্বকে তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, গ্রামীণ নারীদের তথা আদিবাসীদের বহুমাত্রিক ভূমিকা ও অবদানের স্বীকৃতি ও সম্মান করতে হবে। তাহলে গ্রাম উন্নয়নের পাশাপাশি খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত ও গ্রামীণ দারিদ্রতা হ্রাসে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে নারীরা তথা আদিবাসীরা।

সবশেষে, অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে সার্টিফিকেট বিতরণের মধ্য দিয়ে প্রশিক্ষণের সমাপ্তি ঘটে।
বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close