জাতীয়শিরোনাম-২

জনস্বাস্থ্য সুরক্ষার বিবেচনায় বিদ্যমান তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনে সংশোধনী করা হউক

 

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি: জনস্বাস্থ্য সুরক্ষা বিবেচনায় বিদ্যমান তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন সংশোধনীর প্রস্তাব করেছেন অধ্যাপক মাসুদা এম, রশীদ চৌধুরী, এমপি তামাক বিরোধী নারী জোট (তাবিনাজ) এর সভা অনুষ্ঠিত হয় ৫ নভেম্বর, ২০২০ তারিখে এই সভায় তিনি বলেন।
তামাক পণ্য বিক্রির স্থান বা point of sale এর মাধ্যমে কোম্পানী বিজ্ঞাপন প্রচারনা করে যাচ্ছে। বিক্রেতা নানান ভাবে জর্দা কৌটার প্রদর্শন করে ব্যবহারকারীকে আকৃষ্ট করছে এবং তাদের নজরে আনার জন্য কৌটাকে নানান ভাবে প্রদর্শন করছে। এ ধরনের প্রদর্শন পণ্য বিজ্ঞাপনের পর্যায়ে পড়ে অথচ আইনে সেভাবে উল্লেখ নেই।
নিম্ন আয়ের পরবিারে শিশু কিশোরদের মধ্যেও তামাকজাত দ্রব্যের প্রতি আসক্ত হয়ে পড়ার প্রবণতা লক্ষ্য করা যায়। জর্দা, গুল, সাদাপাতা ব্যবহার গ্রামের মহিলাদের মধ্যেই বেশি। খুচরা তামাক বিক্রি বন্ধ করতে হলে সে সংক্রান্ত আইন থাকতে হবে। সুতরাং বিক্রির স্থান চড়রহঃ ড়ভ ঝধষব এ ধরনের প্রদর্শন খুচরা বিক্রি বন্ধ করতে হলে আইনের সংশোধনী আনা প্রয়োজন।
তাবিনাজের আলোচনা সবায় তিনি তামাক চাষ নিয়ন্ত্রণের এর বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে বলেন তামাক চাষের উপরেও আমাদের নজর দিতে হবে। অন্যান্য জায়গায় তামাক চাষ কমে গেলেও পার্বত্য অ লের পাহাড়ি এলাকায় তামাক চাষ বেড়ে গেছে। তাই মানুষকে বাঁচানোর স্বার্থে আমাদের তামাক চাষ নিষিদ্ধের কথাও ভাবতে হবে এবং সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে হবে।
যদিও সরকার তামাক কোম্পানী থেকে অর্থ রাজস্ব পেয়ে থাকে, কিন্তু তবুও আমাদের ভাবতে হবে মানুষের স্বাস্থ্যের ক্ষতির চেয়ে রাজস্ব উপার্জনকেই আমরা মূখ্য করে দেখবো কি না। এসব ব্যাপার নিয়ে আমাদের ভাবতে হবে।

বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close