নওগাঁশিরোনাম-২

রাণীনগরে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জায়গা দখলের পায়তারা

 

কাজী আনিছুর রহমান,রাণীনগর (নওগাঁ) : নওগাঁর রাণীনগরে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বসতবাড়ী ও জায়গা দখলের পায়তারা করার অভিযোগ ওঠেছে। এঘটনায় ওই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। ফলে যে কোন মুহুর্তে সংর্ঘষের আশংকা করছেন স্থানীয়রা।

জানা গেছে, রাণীনগর উপজেলার চকাদিন গ্রামের মৃত ময়েন উদ্দীন সরদারের ছেলে খোরশেদ আলম এর দাদা মৃত মানিক সরদার প্রায় ৫৫ বছর আগে একই গ্রামের সাহেব আলীর নিকট থেকে চকাদিন মৌজার ১১২৬ দাগে ৫৪ শতাংশ জায়গা ক্রয় তরে বসতবাড়ী নির্মান করে বসবাস করে আসছে। এরই মধ্যে হঠাৎ করেই এলাকার খট্টেশ্বর পশ্চিমপাড়া গ্রামের মৃত সাকিম সরদারের মেয়ে তোতা বিবি ও তার লোকজন ওই জায়গার ওযারিশ দাবি করে ২০১৯ সালে আদালতে মামলা দায়ের করেন। এরপর ওই জায়গায় শান্তি বজায় রাখতে তোতা বিবি নিজেই আদালতে ১৪৪ ও ১৪৫ ধারার আবেদন করলে আদালত উক্ত জায়গায় শান্তি বজায় রাখতে গত বছরের ১৯ অক্টোবর থানা পুলিশকে নির্দেশ দেন। সেই মোতাবেক থানা পুলিশ উভয়কে নোটিশ জারি করে শান্তি বজায় রাখতে কঠোর নির্দেশনা প্রদান করেন। এরপর বাদী তোতা বিবি নিজেই গত ২১ নভেম্বর তার লোকজন ও দলবল নিয়ে খোরশেদ আলমসহ ওই জায়গা ভোগদখকারীদের বাড়ীতে হামলা চালিয়ে মারপিট ও লুটপাট করে বলে অভিযোগ করেছেন খোরশেদ আলম। এঘটনায় খোরশেদ আলম বাদী হয়ে লুটপাট, ভাংচুর ও মারপিটের অভিযোগে গত বছরের ২৩ নভেম্বর নওগাঁ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও আমলী আদালতে মামলা দায়ের করেন। এরপর থেকেই তোতা বিবি তার লোকজন নিয়ে খোরশেদ আলম ও তার লোকজনকে বসতবাড়ী থেকে উচ্ছেদ করতে নানা ভাবে হুমকি ধামকি ও পায়তারা করে আসছে।

খোরশেদ আলমসহ ভোগদখকারীরা অভিযোগ করে বলেন, আমাদের বাপ দাদার জায়গায় আমরা বসতবাড়ী নির্মান করে বসবাস করে আসছি। কিন্তু হঠাৎ করেই তোতা বিবি আমাদের ওই জায়গার ওয়ারিশ দাবি করে আদালতে মামলা দায়ের করেছেন । সে নিজেই আদালতে শান্তি কামনা করে ১৪৪ ও ১৪৫ ধারা জারি করেছেন । অথচ তিনি নিজেই আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে আমাদেরকে উচ্ছেদ করতে বিভিন্ন লোকজন দিয়ে আমাদেরকে মারপিট করেছে এবং বাড়ী ঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করেছে। এখন এসে আবারো একই ভাবে বিভিন্ন লোকজন দিয়ে হুমকি ধামকি দিচ্ছে। যে কোন সময় ভারাটিয়া লোকজন দিয়ে আবারো হামলা করতে নানা রকম পায়তারা করছে। ফলে যে কোন সময় সংর্ঘষ বাধতে পারে। তাই সংর্ঘষ এড়াতে সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।

এ ব্যপারে তোতা বিবি মোবাইল ফোনে বলেন,আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকা সর্তেও খোরশেদ আলম ও তার লোকজন ওই জায়গা থেকে বার বার গাছপালা কর্তন করছে এবং নতুন করে বসতবাড়ী নির্মানের চেষ্টা করছে। তাই আমরা বাধা দিতে গেলে আমাদেরকেই মারপিট করেছে। তাদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি করেছেন তোতা বিবি।

রাণীনগর থানার ওসি মো: শাহিন আকন্দ বলেন,এব্যাপারে আমার জানা নেই । অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close