বাগমারাশিরোনাম-২

বাগমারায় দুটি দীঘিতে বিষ প্রয়োগে মাছ নিধনে প্রায় ৩০ লাখ টাকার ক্ষতি করলো দুর্বৃত্তরা

সমিত রায়, বাগমারা: রাজশাহীর বাগমারায় কছিম উদ্দীন নামের এক মৎস্য চাষীর দুইটি দীঘিতে বিষপ্রয়োগ করেছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় দুইটি মাছ সব মাছ করে প্রায় ২৫-৩০ লাখটাকার ক্ষতি সাধন হয়েছে মাছ চাষীর। স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, আউচপাড়া ইউনিয়নের মঙ্গলপুর দাদা ভাইয়ার ১০ বিঘা পরিমানের একটি দীঘি এবং শুভডাঙ্গা ইউনিয়নের শালমারা গ্রামে আরেকটি দীঘিতে একই রাতে বিষ প্রয়োগ করেছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার দিবাগত রাতের কোন এক সময়ে দুইটি দীঘিতেই বিষ প্রয়োগকরে। আজ বুধবার সকালে স্থানীয়রা দীঘির পানিতে মাছ ভাসতে দেখে কছিম উদ্দীনকে খবর দেয়। পরে কছিম উদ্দীন এসে দেখে তার দীঘিতে কোন মাছ জীবিত নেই।

পরে মরা মাছগুলো জাল দিয়ে ধরে তুলে ফেলেছে। দুটি দীঘির মধ্যে একটি ১৭ বছর থেকে চাষ করছে এবং অন্যটি মাস ছয়েক আগে লীজ নিয়েছে। দুই দীঘিতে বিষ প্রয়োগ প্রায় ৩০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে তার। কছিমউদ্দীন হাট-গাঙ্গোপাড়া মৎস্য আড়ৎ সমিতির সভাপতি। তার বাড়ি উপজেলার হাটগাঙ্গোপাড়ায়। এ ঘটনায় দীঘির মালিক কছিম উদ্দীন বলেন, প্রতি দিনের ন্যায় সন্ধ্যায় দীঘি থেকে বাড়িতে চলে গেছি। পরে সকালে স্থানীয় লোকজন আমাকে খবর দেয় কে বা কারা আমার দীঘিতে বিষ প্রয়োগ করে মাছ মেরে ফেলেছে। পরে আমি নিরুপায় হয়ে মরা মাছ দীঘি থেকে জাল দিয়ে ধরে তুলে ফেলে দিয়েছি। মাছ পঁচে যাওয়ায় বিক্রয় করা সম্ভব হয়নি।তিনি আরো বলেন, এখনও মামলা করিনি। তবে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান কছিমউদ্দীন। এ ব্যাপারে বাগমারা অফিসার ইনচার্জ মোস্তাক আহম্মেদ বলেন, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন লিখিত অভিযোগ পায়নি। পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বরেন্দ্র বার্তা/ নাসি

Close