উন্নয়ন বার্তাশিরোনাম

বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটার খুলে নিতে বললেন ডাবলু সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদক : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার নেসকোর  কর্মীদের প্রিপেইড মিটার খুলে পুনরায় এনালগ মিটার চালু করতে নির্দেশ দেন।

শনিবার সকাল থেকে নেসকো’র লোগো গায়ে একদল কর্মী নগরীর কুমারপাড়া ও ফুদকি পাড়ায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে পুরাতন এনালগ মিটার খুলে বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটার লাগিয়ে দিচ্ছিলেন। এলাকাবাসীর দাবি এই কর্মসূচি সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট বাড়ির মালিক বা এলাকায় আগে থেকে কিছুই জানানো হয়নি। খবর পেয়ে ছুটে আসেন নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার। তিনি ওই কর্মীদের নতুন লাগানো প্রিপেইড মিটার খুলে পুনরায় এনালগ মিটার চালু করতে নির্দেশ দেন। ডাবলু সরকার সংশ্লিষ্ট কর্মীদের রাজশাহীতে বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটার নিয়ে নতুন করে জনদুর্ভোগ সৃষ্টির আশঙ্কায় তা স্থাপন করা থেকে বিরত থাকতে বলেন।

এসময় ওই কর্মীরা প্রিপেইড মিটার স্থাপনের নানা যুক্তি তুলে ধরতে চাইলে ডাবলু সরকার সহ এলাকাবাসীর প্রতিবাদে তারা পুনরায় পুরাতন এনালগ মিটার লাগিয়ে দিতে বাধ্য হন। পরে ডাবলু সরকার জানান, প্রিপেইড মিটার টাকা দেয়ার পর তা শেষ হলে কী ঘটবে, বাড়িতে অনুষ্ঠানের সময় অতিরিক্ত ইলেকট্রিক সামগ্রী চালালে কী ঘটবে। ভোক্তা হিসেবে সবার এসব বিষয় জানার অধিকার আছে। যেমন আমরা শুনতে পারছি, বাড়িতে নতুন কোনো ইলেকট্রিক সামগ্রী চালু করলে বা অনুষ্ঠান করলে আগে বিদ্যুত অফিসের কর্তৃপক্ষকে অনুমতি নিতে হবে। প্রিপেইড মিটারে টাকা শেষ হয়ে গেলে বাড়ির বিদ্যুত বন্ধ হয়ে যাবে! এমন অনেক বিষয়ে নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। যা জনমনে নেতিবাচক ধারণার সৃষ্টি করছে। ঢাকা সহ দেশের কয়েকটি জেলার জনগণের প্রতিবাদের মুখে নেসকো এই প্রিপেইড মিটার চালু করতে পারেনি। এখন তারা সেই মিটার রাজশাহীর মানুষের ওপর চাপিয়ে দিতে চাইছে।
ডাবলু সরকার আরো বলেন, আমরা চাইছি আগে নেসকো স্থানীয় জনগণের সাথে আলোচনা করুক, আমাদেরকে এসব বিষয়গুলো বুঝেয়ে দিক। আমাদের প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিক। তারপর তারা এই কার্যক্রম শুরু করুক। সমাজের মানুষের সাথে না বসে এভাবে তারা প্রিপেইড মিটার আমাদের ওপর চাপিয়ে দিতে পারে না। বরেন্দ্র বার্তা / এই

Close