মহানগরশিরোনাম-২

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা পেছানোর দাবিতে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

 

মোঃ আমজাদ হোসেন, রাজশাহী: আজ (০৪মার্চ)বুধবার সকাল ১১টায় রাজশাহী সাহেব বাজার জিরোপয়েন্টে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা পেছানোর দাবিতে ভর্তিইচ্ছু শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন করেন।

করোনার মধ্যে ঝুঁকি নিয়ে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে চান না এমবিবিএস ও বিডিএস কোর্সে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা। তাই আগামী ২ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা পেছানোর দাবি জানিয়েছেন মানববন্ধ।

শিক্ষার্থীরা বলছেন, সারা দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ পুরোপুরি শেষ হয়নি। যারা ভর্তি পরীক্ষা দেবেন তাদের ভ্যাকসিনও দেয়া হয়নি। এছাড়া সব বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা ঈদের পর নেয়া হবে। সেখানে মেডিকেলের পরীক্ষা নিতে কেন এত তাড়াহুড়ো।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী মেডিকেলে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী মেহেদী হাসান বলেন, আমরা এখনো সেইফ জোনে নেই। দেশে ভ্যাকসিন কার্যক্রম শুরু হলেও শিক্ষার্থীদের দেয়া হয়নি। আমরা সবাই ভ্যাকসিন নেওয়ার পরই ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে চাই। ভর্তি পরীক্ষার সঙ্গে শুধু আমরাই নয়, আমাদের পরিবারও জড়িত। তাই আমরা ঝুঁকিমুক্ত পরিবেশে ভয়-ভীতিহীনভাবে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে চাই। সব ভর্তি পরীক্ষা ঈদের পর নেয়া হচ্ছে। তাহলে মেডিকেলে কেন এত আগে নেয়া হবে? অবিলম্বে মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষা তারিখ পেছানো হোক।

আরেক ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী আশা খাতুন বলেন শিক্ষামন্ত্রীর ঘোষণার প্রতি সম্মান দেখিয়ে বিইউপি তাদের পরীক্ষা স্থগিত করেছে। এছাড়া সব বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা ঈদের পর নেয়া হবে। সেখানে আমরা কেন স্বাস্থ্যঝুঁকি নিয়ে পরীক্ষায় বসবো? শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার কথা ভেবে এইচএসসির মতো গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। স্কুল-কলেজ সব বন্ধ রয়েছে। তাহলে মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষা কেন পেছানো হবে না। আমরা ভ্যাকসিন না নিয়ে ভর্তি পরীক্ষায় বসতে চাই না।

আরেক ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী আনসারুজ্জামান সিয়াম, বলেন এবার অনেক শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেবেন। পরীক্ষার্থী এবং অভিভাবক মিলে প্রায় ৪/৫ লাখ মানুষের সমাগম হবে। ফলে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে গিয়ে শিক্ষার্থী অথবা তার অভিভাবকদের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। যদি কেউ আক্রান্ত হয় তাহলে তার দায়ভার কে নেবে? সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার মতো ঈদের পর মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষা আয়োজনের দাবি জানাচ্ছি।
বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close