উন্নয়ন বার্তা

স্কুল ম্যানেজমেন্ট কমিটি ও শিক্ষকদের সাথে এডভোকেসী সভা

নগর পতিবেদক: উন্নয়ন ও মানবাধিকার সংগঠন এ্যাসোসিয়েশন ফর কম্যুনিটি ডেভেলপমেন্ট-এসিডি’র উদ্যোগে ১৪ জুলাই ২০১৮ তারিখ রাজশাহী বি.বি হিন্দু একাডেমির ম্যানেজমেন্ট কমিটি (এসএমসি) ও শিক্ষকদের সাথে ‘ইন্টারনেট অপব্যবহারের মাধ্যমে শিশু যৌন নির্যাতন প্রতিরোধ এবং নিরাপদ ইন্টারনেট ব্যবহার বিষয়ক’ এডভোকেসী সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী বি.বি হিন্দু একাডেমির স্কুল ম্যানেজমেন্ট কমিটির সভাপতি জগদীস চন্দ্র ঘোস। শুরুতেই এসিডি’র প্রোগ্রাম অফিসার হাফিজ উদ্দীন কর্মসূচির উদ্দেশ্য বর্ণনা করেন। তিনি বলেন, আমাদের কর্মসূচির উদ্দেশ্য হলো নিরাপদ ইন্টারনেট ব্যবহার নির্দেশিকা পাঠ্য বইয়ে অন্তর্ভূক্তির মাধ্যমে দেশের সকল শিশুদের নিরাপদ ইন্টারনেট ব্যবহারে সচেতন করে তোলা। এর ফলে আমাদের শিশুরা নিরাপদ ইন্টারনেট ব্যবহারে উদ্যোগী হবে। ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেনির শিক্ষার্থীরা নিরাপদ ইন্টারনেট ব্যবহার সম্পর্কে সচেতন হবে এবং এর ভালো-মন্দ দিকগুলো সম্পর্কে পরিস্কার ধারণা পাবে। অন্যদিকে যদি নির্যাতনের শিকার হয় তাহলে যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে বিচার চাইতে পারবে।

অনুষ্ঠানে মাল্টিমিয়া মাধ্যমে ‘নিরাপদ ইন্টারনেট ব্যবহারে সচেতনতা বিষয়ক নির্দেশিকা’ উপস্থাপন করেন প্রোগ্রাম ম্যানেজার মো. আলী হোসেন। উপস্থাপনায় অনলাইনে শিশুদের যুক্ত থাকার সুবিধা এবং যুক্ত না থাকার অসুবিধা, অনলাইন শিশু যৌন নির্যাতন এবং শোষণ, নির্যাতনের ধরন, নির্যাতন বিষয়ে শেয়ারিং এর প্রয়োজনীয়তা, সামাজিক ট্যাবো, কারা যৌন নির্যাতন করে, নির্যাতন থেকে সুরক্ষার উপায়, সতর্কতা এবং আইনগত প্রতিকার এসব বিষয় গুরত্ব পায়।

মুক্ত আলোচনায় গুরুত্বপূর্ণ মতামত ব্যক্ত করেন রাজশাহী বি.বি হিন্দু একাডেমির সহকারী প্রধান রাজেন্দ্রনাথ সরকার, সহকারী প্রধান শিক্ষক অনল কুমার মন্ডল, স্কুল ম্যানেজমেন্ট কমিটির সদস্য মলয় কুমার ঘোষ, অভিভাবক বিশাখা রানী দাস, স্বপন কুমার, শিলা রানী প্রমূখ।

বক্তারা বলেন, আমাদের দেশে শিশুরা বিশেষ করে মেয়ে শিশুরা ইন্টারনেটের অপব্যবহারের কারণে বিভিন্নভাবে নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। আমরা এব্যাপারে শিশুদের সাথে কথা বলতে তেমন আগ্রহী নই। যদি পাঠ্য বইয়ে বিষয়টি অন্তর্ভূক্ত হয় তাহলে অবশ্যই শিশুরা নির্যাতন থেকে নিজেদের রক্ষা করতে শিখবে। তাঁরা অভিভাবকদেরও ইন্টারনেট ব্যবহার সম্পর্কে অধিক সচেতন হওয়া ও নজরদারি করার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন। এছাড়াও স্কুল ম্যানেজমেন্ট কমিটি শিক্ষার্থীদের ক্লাসে এবং অভিভাবক সমাবেশে অভিভাবকদের মাঝে ইন্টারনেটের অপব্যবহারের ক্ষতির দিকগুলো নিয়ে আলোচনার মাধ্যমে সচেতনতা তৈরি করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। এক্ষেত্রে স্কুল কর্তৃপক্ষ এসিডি’র সহযোগিতা কামনা করেন। এসিডিও সার্বিক সহযোগিতা করবেন বলে জানান।

বরেন্দ্র বার্তা/হাপি

Close